Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

১. কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে গবাদি পশুর জাত উন্নয়ন ও গুণগত মান বৃদ্ধি ।

২. জামালপুর ও শেরপুর জেলার প্রতি ইউনিয়নে একজন করে কৃত্রিম প্রজনন সেচ্ছাসেবী নিয়োগের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে ।

৩. প্রজনন ষাঁড় থেকে সিমেন সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষা পূর্বক ডাইলুশন করে জামালপুর ও শেরপুর জেলার ৬০টি এ.আই পয়েন্টে সরবরাহ করা ।

৪. সাভার এ.আই ল্যাব থেকে প্রতি মাসে প্রাপ্ত হিমায়িত সিমেন ৮৪টি উপকেন্দ্র/পয়েন্টে সরবরাহ করা হয়।

৫. হিমায়িত ও তরল উভয় ধরনের সিমেন এ.আই কর্মীদের মাধ্যমে কৃষকের ডাকে (গরম হওয়া) আসা গাভীকে কৃত্রিম প্রজনন সেবা প্রদান করা হয়, এর ফলে কৃষক অধিক দুধ ও মাংস উৎপাদনশীল একটি উন্নত জাতের বাছুরের মালিক হন।

৬. অত্র জেলা কেন্দ্র থেকে উন্নত জাতের ঘাসের কাটিং/বীজ সরাসরি কৃষকদেরকে সরবরাহ করে উন্নত জাতের ঘাসের উৎপাদন বৃ্দ্ধির মাধ্যমে গবাদি পশুর পুষ্টির চাহিদা পূরন করা হয়।

৭. খামারিদেরকে কৃত্রিম প্রজনন, গবাদি প্রাণীর পরিচর্যা, খাদ্য ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করা।

৮. সর্বোপরি অত্র জেলা কেন্দ্র থেকে কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে উন্নত জাতের গবাদি পশু তৈ্রী করে অধিক দুধ ও মাংস উৎপাদনের ফলে কৃ্ষক সরাসরি আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে।